আবার সবুজ হতে পারে সাহারা মরুভূমি

নতুনপাতা ডেস্ক : পাঁচ থেকে এগারো হাজার বছর আগে, ঠিক বরফ যুগের শেষ দিকে বালুময় সাহারা পরিণত হয় সবুজ মরুভূমিতে। বালির ওপর জন্মায় সবুজ ঘাস, লতা-গুল্ম ও গাছপালা। আর এই গাছপালা বেড়ে উঠার সঙ্গে সঙ্গে বেড়ে যায় বৃষ্টিপাতও। ফলে ছোট ছোট শুষ্ক গর্তগুলো পরিণত হয় হ্রদে। উত্তর আফ্রিকার প্রায় সাড়ে ৯ মিলিয়ন বর্গকিলোমিটার এলাকা সবুজে সবুজে ছেয়ে যায়। এই সবুজের সমারোহ বিভিন্ন প্রকার পশুদের আকৃষ্ট করে। হিপ্পস, অ্যান্টেলিপস, অরোকস এবং হাতিসহ বিভিন্ন গবাদিপশুরা আসে এই সবুজ ঘাস ও ঝোপঝাড় খেতে।

সাহারার এই চিরসবুজ স্বর্গ বিলীন হয়েছে বহুকাল আগেই। তবে আবার কি কখনও এই বালুময় সাহারা সবুজ হয়ে উঠতে পারে? সংক্ষেপে উত্তর- হ্যাঁ । ক্যালিফোর্নিয়া বিশ্ববিদ্যালয়ের আর্থ সিস্টেমের সহযোগী অধ্যাপক ক্যাথলিন জনসনের মতে, গ্রীন সাহারা, ”আফ্রিকান আর্দ্র সময়কাল” নামেও পরিচিত, এটি পৃথিবীর ক্রমাগত তার অক্ষের চারপাশে কক্ষপথ ঘোরার কারণেই তৈরি হয়েছিল, যা প্রতি ২৩,০০০ বছর পরে নিজেকে পুনরাবৃত্তি করে। তবে, ওয়াইল্ডকার্ডের কারণে – মানব-সৃষ্ট গ্রীনহাউস গ্যাস নির্গমন জলবায়ু পরিবর্তনের দিকে পরিচালিত করেছে – এটি পরিষ্কার নয় যে, কবে নাগাদ সাহারা আবার সবুজ ভুমিতে পরিণত হবে।

পৃথিবীর ঢল পরিবর্তনের কারণে বালুময় সাহারা সবুজে রুপান্তরিত হয়েছিল। প্রায় ৮,০০০ বছর আগে, পৃথিবীর ঢল প্রায় 24.1 ডিগ্রি কাত ছিল যা বর্তমানে 23.5 ডিগ্রি কাত হয়ে আছে। স্পেস ডট কম -এর তথ্যমতে, পৃথিবীর এই ঢল পরিবর্তন একটি বড় পার্থক্য করেছে; এই মুহুর্তে, উত্তর গোলার্ধটি শীতের মাসগুলিতে সূর্যের সবচেয়ে কাছাকাছি থাকে। সাহারা যখন সবুজ ছিল তখন গ্রীষ্মের সময় উত্তর গোলার্ধটি সূর্যের সবচেয়ে কাছাকাছি ছিল।

এটি গ্রীষ্মের সময় পৃথিবীর উত্তর গোলার্ধে সৌর বিকিরণ (অন্য কথায়, তাপ) বৃদ্ধি করে। সৌর বিকিরণের কারণে আফ্রিকায় বৃষ্টিপাত বেড়ে যায়, ফলে অঞ্চলটিতে সমুদ্র ও ভুমির তাপমাত্রায় ব্যাপক পার্থক্য ঘটে । সাহারার ক্রমবর্ধমান উত্তাপ নিম্নচাপের সৃষ্টি করে, যা আটলান্টিক মহাসাগর থেকে অনুর্বর মরুভূমিতে আর্দ্রতা সৃষ্টি হয়। (সাধারণত, শুষ্ক জমি থেকে বাতাস প্রবাহিত হয়ে ধুলো ছড়িয়ে দেয় আটলান্টিকের দিকে , যা অ্যামাজনের রেইন ফরেস্টকে উর্বর করে ক্যারিবিয়ায় সৈকত গড়ে তোলে।

জাতীয় মহাসাগর ও বায়ুমণ্ডলীয় প্রশাসন (এনওএএ) এর মতে, এই আর্দ্রতা পূর্বের বালুময় সাহারাকে ঘাসে এবং ঝোপঝাড়ে রূপান্তরিত করে।

Leave a Reply