নুরজাহান রুনা

তুরস্ক ও গ্রীসে মারাত্মক ভূমিকম্পের চারদিন পর এপার্টমেন্ট বিল্ডিংয়ের ধ্বংসস্তূপ থেকে এক শিশুকে জীবিত উদ্ধার করা হয়েছে। শিশুটির বয়স চার বছর। তার নাম আয়দা গেজগিন।

গতকাল মঙ্গলবার তুরস্কের উপকূলীয় শহর ইজমিরে এই ঘটনাটি ঘটেছে। ধ্বংসস্তূপের নিচ থেকে তার চিৎকার শোনার কয়েক ঘণ্টা পর উদ্ধারকর্মীরা শিশুটিকে উদ্ধার করতে সক্ষম হয়।

শিশুটিকে ধ্বংসস্তুপ থেকে উদ্ধার করার সময় তার বাবা উগুর উদ্ধারকর্মীদের সাহায্য করেন বলে যুক্তরাজ্যের ডেইলি মেইলসূত্রে জানা যায়।
উদ্ধারের সময় উগুর তার মেয়ের ধুলোবালি মাখা মুখটি চুমু খাচ্ছিলেন যাতে শিশুটির মন অন্যদিকে থাকে। ফলে ধ্বংসস্তূপ থেকে শিশুটিকে উদ্ধার করতে সহজ হয়।
উদ্ধারের পর শিশুটিকে একটি এম্বুলেন্সে করে স্থানীয় হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়। সেসময় উদ্ধারকর্মীরা আনন্দ উল্লাস করতে থাকে।
এদিকে উদ্ধার কাজে নিয়োজিত জরুরি টিমগুলো জীবিতদের উদ্ধারে পাঁচটি এপার্টমেন্ট ব্লক অনুসন্ধান চালিয়ে যাচ্ছে।

এছাড়া জরুরি উদ্ধারকর্মীরা তুরস্কের তৃতীয় বৃহত্তম নগরীর বিভিন্ন জায়গায় আরও মরদেহ উদ্ধার করেছে। এতে ভূমিকম্পে নিহতের সংখ্যা ১০২ এ পৌঁছেছে। নিহতের সংখ্যা আরও বাড়তে পারে বলে ধারণা করা হচ্ছে।

ভূমিকম্পটি ৭.০ মাত্রার তীব্রতা সম্পন্ন বলে জানিয়েছে মার্কিন ভূ-তাত্ত্বিক জরিপ। যদিও তুরস্কের অন্যান্য সংস্থা এটিকে আরও কম তীব্র হিসেবে রেকর্ড করেছে।

Leave a Reply