ফয়সাল আহমেদ

টানা কয়েক সপ্তাহ লড়াই চলার পরে, অবশেষে ইথিওপিয়ার প্রধানমন্ত্রী আবি আহমেদ ইথিওপিয়ার আঞ্চলিক রাজধানী মেকেলেলে হামলার  ঘোষনা দিলেন। সেখান কার বিরোধী পার্টি টিপিএলএফ এর সাথে সেনাবাহিনীর লড়াই বেশ কিছুদিন ধরে চলমান রয়েছে।১৯৯১-২০১৮ সাল পর্যন্ত দেশটি শাষন করেছে টিপিএলএফ। ২০১৮ সালে আবি আহমেদ নির্বাচিত হবার পরে দেশটির চিত্র কিছুটা বদলায়। এই মেকেলেলে শহরে প্রায় ৫ লক্ষ মানুষের বসবাস। প্রধানমন্ত্রী বলেছেন তার সেনাবাহিনী এই ৫ লক্ষ মানুষের সম্পূর্ণ নিরাপদে রেখে টিপিএলএফ এর বিদ্রোহীদের দমন করার চেষ্টা করবে। তাদের বাসস্থান নিরাপদ রাখবে, যেন কোন সাধারন মানুষের ক্ষতি না হয় সেই দিকে লক্ষ রেখেই হামলার ঘোষনা দিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী আবি আহমেদ।তিনি বলেন পরিস্থিতি যে ভাবে আছে সেখান থেকে আর পিছু হটার সুযোগ নেই। তবে এই হামলা করা সহজ হবে না বলে জানিয়েছেন বিশেষজ্ঞরা, সেখানে যদি মিসাইল হামলা করা হয়, অথবা আর্টিলারি হামলা করা হয়, তাহলে সাধারন মানুষ নিরাপদ রাখটা অনেক কঠিন হবে। সেক্ষেত্রে গেরিলা যুদ্ধ হতে পারে অনেক যায়গাই। যার ফলে অনেক সাধারন মানুষের জীবন বিপন্ন হবার বড় শংকা রয়েছে। জাতিসংঘ আবি আহমেদের সেনা কে লক্ষ করে বলেন মেকেলেলে আক্রমণ করলে যুদ্ধঅপরাধ সংঘটিত হতে পারে । এবং জাতিসংঘের মানবধিকার সংস্থার প্রধান মিশেল ব্যাচলেট বলেন “সেখানকার মানুষ গভীর বিপদের মধ্যে আছে”।তবে আবি আহমেদ বলেছেন সাধারন মানুষের প্রতি বিশেষ যত্নবান এবং দ্বায়িত্ববোধ নিয়েই লড়াই চালাবেন। সাধারন মানুষের উদ্দোশ্য করে বলেন কিছু টার্গেটেড জায়গা ছেড়ে অন্য কোথাও সরে যাওয়ার জন্য। তবে টিপিএলএফ পার্টির নেতারা বলেন টাইগ্রের মানুষ আমাদের অঞ্চল পরিচালনার জন্য এবং প্রতিরক্ষায় জীবন দিতে প্রস্তুত।

তথ্যসুত্র ও ছবি / বিবিসি

Leave a Reply