র‌্যাবের সঙ্গে গোলাগুলিতে ৩ রোহিঙ্গা সন্ত্রাসী নিহত

জাফর আলম,কক্সবাজার

কক্সবাজারের টেকনাফের আলোচিত রোহিঙ্গা ডাকাত জকিরসহ তিন রোহিঙ্গা সন্ত্রাসী র‍্যাবের সঙ্গে গোলাগুলিতে নিহত হয়েছেন। মঙ্গলবার সন্ধ্যায় টেকনাফের ২৬ নম্বর রোহিঙ্গা ক্যাম্পের পাশের জাদীমুরা শালবন পাহাড়ে এ গোলাগুলির ঘটনা ঘটে। ঘটনাস্থল থেকে বিদেশি পিস্তলসহ ৯টি আগ্নেয়াস্ত্র উদ্ধার করা হয়েছে বলে জানিয়েছে র‍্যাব।গোলাগুলিতে র‍্যাবের এক সদস্যও গুলিবিদ্ধ হয়েছেন বলে উল্লেখ করেছেন র‍্যাব-১৫-এর কমান্ডার উইং কমান্ডার আজিম আহমেদ। নিহত জাকির আহাম্মদ ওরফে জকির ডাকাত হ্নীলা নয়াপাড়ার নিবন্ধিত রোহিঙ্গা ক্যাম্পের আবদুল আমিনের ছেলে। তার এমআরসি নম্বর-২৬৪৯৯, শেড নম্বর-৮২৫, রুম-০২, ব্লক-সি। তিনি ছাড়া বাকি নিহতদের নাম তাৎক্ষণিক জানাতে পারেনি র‍্যাব। তবে, তারা টেকনাফের শালবন এলাকার ভয়ংকর রোহিঙ্গা সন্ত্রাসী জকির বাহিনীর সদস্য হামিদ ও জহির বলে জানা গেছে। র‍্যাব-১৫-এর অধিনায়ক উইং কমান্ডার আজিম আহমেদ জানান, ভয়ঙ্কর সন্ত্রাসী জকির বাহিনীর সদস্যরা অস্ত্রশস্ত্রসহ শালবন পাহাড়ে অবস্থান করার খবর পেয়ে র‍্যাবের একটি দল বিকেলে সেখানে অভিযান চালায়। এসময় র‍্যাবের উপস্থিতি টের পেয়ে সন্ত্রাসীরা এলোপাতাড়ি গুলি বর্ষণ করতে থাকে। র‍্যাবও আত্মরক্ষার্থে গুলি চালায়। দীর্ঘক্ষণ গোলাগুলির এক পর্যায়ে সন্ত্রাসীরা পিছু হটে। পরে ঘটনাস্থল তল্লাশি করে তিনজনের গুলিবিদ্ধ মরদেহ পাওয়া যায়।ঘটনাস্থল থেকে বিদেশি পিস্তলসহ ৯টি আগ্নেয়াস্ত্র উদ্ধার করার কথা জানিয়েছেন তিনি। ঘটনার বিস্তারিত নিয়ে পরে ব্রিফিং করা হবে উল্লেখ করে তিনি বলেন, জকির ডাকাতর বিরুদ্ধে হত্যা, ধর্ষণ, অপহরণ এবং মাদকসহ সর্বমোট ২০টির অধিক মামলা রয়েছে।

Leave a Reply