ঝিনাইদহে পলিথিন-প্লাস্টিক বর্জ্য অপসারণ ের কাজ শুরু করলো জাতীয় রিকশা-ভ্যান শ্রমিক লীগ

সভ্যতার অগ্রগতির সঙ্গে সঙ্গে বিজ্ঞান মানু্ষকে অনেক কিছু উপহার দিয়েছে, যা জীবনযাপনকে করেছে সহজতর৷ কিন্তু বিজ্ঞানের সেই আশীর্বাদ মানুষের বিবেচনার অভাবে পরিণত হয়েছে অভিশাপে৷ পলিথিন- প্লাস্টিক বর্জ্য তার সবচেয়ে বড় উদাহরণ৷ সেই অভিশাপ থেকে ঝিনাইদহ বাসিকে মুক্ত করতে পলিথিন-প্লাস্টিক বর্জ্য অপসারণের কাজ শুরু করেছে ঝিনাইদহের জাতীয় রিকশা-ভ্যান শ্রমিক লীগ। আজ সকাল ১০ টায় ঝিনাইদহ শহরের চুয়াডাঙ্গা বাস ষ্ট্যান্ডের মুজিব চত্বর থেকে এ কর্মসূচি শুরু করা হয়।

এসময় জাতীয় রিকশা-ভ্যান শ্রমিক লীগের ঝিনাইদহ জেলা শাখার সাধারন সম্পাদক একরামুল হক লিকু বলেন মানুষ জন অসচেতন ভাবে পলিথিন -প্লাস্টিকের সামগ্রী যেখানে-সেখানে ফেলে দিচ্ছে৷ যেহেতু প্লাস্টিকের সামগ্রী মাটিতে মিশে যায় না, এর একাংশ পুনর্ব্যবহারযোগ্য নয়, তাই ক্রমশ তা বর্জ্য হিসেবে জমা হচ্ছে লোকালয়ের বুকে৷ আর তা থেকেই ছড়াচ্ছে দূষণ৷ পলিমার সামগ্রী পুড়িয়ে ফেললে আরও বিপদ, হাইড্রোকার্বন হয়ে বাতাসে মিশে তা বাড়িয়ে দিচ্ছে দূষণের মাত্রা৷ কাজেই আমরা সরকারের কাছে অনুরোধ করবো, যত দ্রুত সম্ভব বাংলাদেশে পলিথিন ব্যবহার নিষিদ্ধ এবং বাজারে মনিটরিং করে অসাধু এই পলিথিন ব্যবসায়ীদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা গ্রহণের জন্য। তিনি আরও বলেন আমরা যে কার্যক্রম হাতে নিয়েছি তা চলমান থাকবে। এই করোনা কালীন সময়ে স্বাস্থ্য বিধি মেনে আমি-এবং আমার ঝিনাইদহ জেলার জাতীয় রিকশা-ভ্যান শ্রমিক লীগের কর্মীদের নিয়ে এই কার্যক্রম অব্যাহত রাখবো। এ সময় আরও উপস্থিত ঝিনাইদহ পৌর আওয়ামী লীগের সভাপতি বাবু জীবন কুমার বিশ্বাস।

Leave a Reply